রেলে ঈদযাত্রা: পশ্চিমাঞ্চল-পূর্বাঞ্চলে টিকিট বিক্রি নিমিষেই শেষ

 প্রকাশ: ০৩ জুন ২০২৪, ০৭:১৭ অপরাহ্ন   |   জাতীয়


আসন্ন ঈদুল আজহার ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু না হতেই শেষ হয়ে গেছে।


রোববার ( ২ জুন) সকাল ৮টা শুরু হওয়া পশ্চিমাঞ্চল আর দুপুর দুইটা থেকে শুরু হওয়া পূর্বাঞ্চলের টিকিট বিক্রিতে একই প্রবণতা দেখা গেছে।


পশ্চিমাঞ্চলে সকাল ৮টায় শুরু হওয়ায় পর প্রথম চার ঘণ্টাতেই ১৪ হাজার ১৫৭টি টিকেটের মধ্যে প্রায় ১৪ হাজার টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। প্রথম আধা ঘণ্টায় ১ কোটি ৯০ লাখ হিট হয়েছে।


অন্যদিকে পূর্বাঞ্চলের টিকিট দুপুর দুইটা থেকে বিক্রি শুরু হওয়ার সাড়ে চার ঘণ্টার মধ্যে অধিকাংশ টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে।  


পূর্বাঞ্চলের ১৫ হাজার ৮১১ টি টিকিটের মধ্যে ১৫ হাজার টিকিট বিক্রি হয়েছে। প্রথম আধা ঘণ্টায় পূর্বাঞ্চলে টিকিট পেতে ১ কোটি ১ লাখ হিট পড়েছে।


তবে পূর্বাঞ্চলের ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের সামান্য কিছু টিকিট অবিক্রিত রয়েছে। এ রুটে চলাচলকারী ননস্টপ সোনার বাংলা ও সূবর্ণ এক্সপ্রেসের অধিকাংশ টিকিট বিক্রি হয়েছে। তবে মহানগর এক্সপ্রেস, মহানগর প্রভাতী ও চট্টলা এক্সপ্লেসের কিছু টিকিট অবিক্রিত রয়েছে।


ঢাকা রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুদ সারওয়ার বাংলানিউজকে বলেন, পশ্চিমাঞ্চলের টিকিট বিক্রির শুরুতেই উত্তরবঙ্গের টিকিটের অনেক চাহিদা ছিল। এদিন পূর্বাঞ্চলের টিকিটেরও চাহিদা ছিল।


রেলওয়ের কর্ম পরিকল্পনা অনুযায়ী, ঈদের আগে আন্তনগর ট্রেনের ১২ জুনের আসন বিক্রি হবে ২ জুন; ১৩ জুনের আসন বিক্রি ৩ জুন; ১৪ জুনের আসন বিক্রি ৪ জুন; ১৫ জুনের আসন বিক্রি ৫ জুন; ১৬ জুনের আসন বিক্রি ৬ জুন। এছাড়া যাত্রী সাধারণের অনুরোধে নন-এসি কোচের ২৫ শতাংশ আসন যাত্রা শুরুর আগে প্রারম্ভিক স্টেশন থেকে পাওয়া যাবে।  


এর আগে আন্তমন্ত্রণালয় সভায় ২ জুন থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রির প্রস্তাব দেয় হয়। প্রস্তাব অনুযায়ী, এবার ঈদের আগে ৫ দিন ট্রেনযাত্রা ধরা হতে পারে। যদিও গত ঈদে ছুটি বেশি থাকায় ৭ দিন ধরা হয়েছিল। একজন যাত্রী সর্বোচ্চ চারটি টিকিট অনলাইনে সংগ্রহ করতে পারবেন।


ঈদুল ফিতরে সরকারি ছুটি ছিল প্রায় আট দিন। ঈদুল আজহায় ১৬-১৮ জুন সরকারি ছুটি। এর আগে ১৪ ও ১৫ জুন শুক্র ও শনিবার। ১৩ জুন বৃহস্পতিবার অফিস করেই বাড়ির পথে ছুটবে মানুষ। সব মিলিয়ে এবারের ঈদে ছুটি হবে কমপক্ষে পাঁচদিনের।