বেরোবিতে ভর্তি বিষয়ে দালালী চক্রের জালিয়াতির প্রলোভন

 প্রকাশ: ০২ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৩৫ অপরাহ্ন   |   শিক্ষা



সিদ্দিক (বেরোবি):
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবিতে) জালিয়াতির মাধ্যমে ভর্তির প্রলোভন দেওয়ায়, থানায় অভিযোগ করেছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শনিবার (০১ জানুয়ারি) বিকেলে প্রক্টর গোলাম রব্বানী রংপুর তাজহাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য মেধা তালিকা প্রকাশের কয়েক ঘণ্টার মাথায় শনিবার একটি অসাধু চক্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গ্রুপ চালু করে ভর্তির প্রলোভন দিচ্ছে।  আমরা আশঙ্কা করছি অসাধু চক্রটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির বিষয়ে ভুয়া তথ্য সরবরাহ করে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার পাঁয়তার করছে।

এরআগে শনিবার সকালে ‘বেরোবি ,চান্স ১০০% করে দিব’ গ্রুপ থেকে মেসেজ সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়। এতে বলা হয়, ‘যারা বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পায়নি তাদের চান্স পেয়ে দেব। এতে খরচ হবে ২০ হাজার টাকা। অগ্রিম পেমেন্ট করতে হবে ৮৫০ টাকা।’

শনিবার দুপুরে একই গ্রুপ থেকে আরেকটি মেসেজ শেয়ার করা হয়। সেখানে লেখা ছিল ‘যারা রেজাল্ট চেঞ্জ করার জন্য ৮৫০ টাকা দিয়েছেন তাদের রেজাল্ট চেঞ্জ হয়েছে। বিকেল ৫টার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে রেজাল্ট পাবেন। বাকি টাকা ভর্তির পর দেবেন।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ তথ্য ও প্রকাশনা বিভাগের কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী বলেন, যে মোবাইল নম্বর দিয়ে জালিয়াতি গ্রুপের  
অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে তা সার্চ দিয়ে ‘DU Admission’ সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। এর অর্থ এটি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি-সংক্রান্ত প্রতারক চক্র।

তিনি আরও বলেন, জালিয়াতির মাধ্যমে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সুযোগ নেই। মেধা তালিকা থেকেই যথাযথ নিয়ম অনুসারে ভর্তি হতে হবে।এ বিষয়ে রংপুর তাজহাট থানার ডিউটি অফিসার এসআই আব্দুর রউফ বলেন, থানায় একটি জিডি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ‍আমরা এ বিষয়ে আইন অনুসারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

উল্লেখ্য, ৩১ ডিসেম্বর রাত ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।  ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তালিকা ও ভর্তি বিজ্ঞপ্তি থেকে প্রাপ্ত তথ্যমতে, জিএসটি গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়। বিভাগগুলোতে আসন খালি থাকা সাপেক্ষে ১১ জানুয়ারি দ্বিতীয় মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে।