রেমিট্যান্স ও রফতানি বিলে ডলারের অভিন্ন রেট নির্ধারণ

 প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ন   |   অর্থ ও বাণিজ্য


রেমিট্যান্স ও রফতানি বিলে ডলারের অভিন্ন রেট নির্ধারণ করে দিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) এবং বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা)।   সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে পরবর্তী পাঁচ দিনের জন্য এই রেট কার্যকর হবে।



রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) সোনালী ব্যাংকের বোর্ড রুমে এবিবি এবং বাফেদার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।


নির্ধারিত রেট অনুযায়ী দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো এখন থেকে প্রতি ডলার সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা হিসাবে প্রবাসী আয় (রেমিট্যান্স) সংগ্রহ করবে।


অন্যদিকে রফতানি বিল নগদায়ন করা হবে প্রতি ডলার ৯৯ টাকায়। এতে করে রেমিট্যান্স আহরণ ও রফতানি বিল নগদায়নে ব্যাংকগুলোর গড় খরচ হবে ১০৩ টাকা ৫০ পয়সা। এর সঙ্গে এক টাকা যোগ করে আমদানিকারকের কাছে ডলার বিক্রি করবে ব্যাংকগুলো। ফলে এলসি সেটেলমেন্টের জন্য ডলার বিক্রি করা হবে ১০৪ টাকা ৫০ পয়সায়।


বৈঠক শেষে বাফেদার চেয়ারম্যান ও সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আফজাল করির বলেন, ‘আজকের বৈঠকে আমরা (বাফেদা-এবিবি) বাজার পর্যালোচনা করেছি। পর্যালোচনা শেষে আমাদের সিদ্ধান্ত হয়েছে এক্সচেঞ্জ হাউস ও সমগোত্রীয় ডিপার্টমেন্ট থেকে ডলারের সর্বোচ্চ রেট হবে ১০৮ টাকা। এ রেট সব এডি ব্যাংক মেনে চলার ব্যাপারে আমরা একমত হয়েছি। রেমিট্যান্সের এই অভিন্ন রেট সোমবার থেকে পাঁচ কার্যদিবসের জন্য কার্যকর হবে। পরবর্তী সময়ে পর্যালোচনা করে নতুন রেট আসতে পারে। এই রেট কিছুদিন পরপর পরিবর্তন করবে এবিবি ও বাফেদা। বাংলাদেশ ব্যাংক এই রেট পর্যবেক্ষণ করবে এবং নিয়মিত ব্যাংকগুলোর সঙ্গে তথ্য উপাত্ত বিনিময় করবে। ’


তিনি বলেন, ‘আমাদের রফতানি বিলের ক্ষেত্রে ৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে রফতানির জন্য এটি নির্ধারিত রেট। রেমিট্যান্স আহরণ ও রফতানি বিল নগদায়নে ব্যাংকগুলোর গড় খরচ হবে ১০৩ টাকা ৫০ পয়সা। এর সঙ্গে আরও এক টাকা যোগ করে আমদানিকারকের কাছে ডলার বিক্রি করবে ব্যাংকগুলো। ’


অন্যদিকে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) চেয়ারম্যান সেলিম আর এফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা সবাই একমত হয়ে যে রেট নির্ধারণ করে দিয়েছি, সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে তা কার্যকর হবে। এটি আগামী বেশ কিছুদিন চালিয়ে যাব। এ রেট সময়ের পরিক্রমায় পরিবর্তন হবে। আমরা মনে করি, এটা ফেয়ার এবং মার্কেট রেট। আমাদের এ পদক্ষেপ ব্যাংকিং সেক্টরের জন্য বড় মাইলফলক। আমাদের এ যাত্রায় সেন্ট্রাল ব্যাংকের মনিটরিং থাকবে। ’


জানা গেছে, গত সপ্তাহে ব্যাংকগুলো রফতানি আয় নগদায়ন করেছিল ১০৪ থেকে ১০৬ টাকা দামে। নতুন এই সিদ্ধান্তের ফলে রফতানি বিল নগদায়ন হবে ৯৯ টাকায়। এতে করে খরচ কমবে আমদানি পণ্যে। রফতানি বিল নগদায়ন কমার ফলে দাম কমে আসতে পারে আমদানি পণ্যের।


বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদারের সভাপতিত্বে এক বৈঠকে এবিবি ও রাফেদা‘কে ক্ষমতা বিষয়টি নির্ধারনের জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয়। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার এবিবি ও রাফেদা বৈঠক করে রেমিট্যান্স ও রফতাানি বিলে ডলারের অভিন্ন রেট চূড়ান্ত করেছে। সোমববার থেকে এই রেট কার্যকর করা হবে।