প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০ ভাগ করে চলছে মশা নিধন

 প্রকাশ: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন   |   মন্ত্রনালয়


 রাজধানী ঢাকার প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি করে ক্ষুদ্র ইউনিটে বিভক্ত করে মশক নিধন কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।
শুক্রবার(৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক চুন্নুর এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।


শুক্রবার প্রশ্ন উত্তর পর্ব টেবিলে উপস্থাপিত হয়। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন।
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, সিটি করপোরেশনের প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে বিভক্ত করে টিম গঠন এবং প্রতিটি টিমের নেতৃত্বে মশক নিধনের কার্যক্রম নিবিড়ভাবে পরিচালনা চলছে। মশক নিধনে দৈনিকভিত্তিতে ৩ হাজার জনবল নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। গুণগত-মানসম্পন্ন কীটনাশক নির্বাচন ও অন্যান্য যন্ত্রপাতির সংস্থান নিশ্চিত করা হয়েছে। ডেঙ্গুসহ মশকবাহী রোগ প্রতিরোধে আন্তঃমন্ত্রনালয়সহ সব সব র্পযায়ে সভা করা হয়েছে। মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধে জাতীয় নির্দেশিকা ছাপানো হয়েছে।

তিনি বলেন, সকাল বেলা লার্ভিসাইড এবং বিকেল বেলা অ্যাডাস্টিসাইড প্রয়োগ করা হচ্ছে। মশক নিধনে সেল গঠন করা হয়েছে। সরকারি আবাসিক ও অনাবাসিক ভবন ও অন্যান্য দপ্তরে এবং নগরীর উন্মুক্ত স্থানে স্ব স্ব উদ্যোগে পরিষ্কার-পরিচ্ছনতা নিশ্চিত করা হচ্ছে। বেতার, টেলিভিশন  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সচেতনতামুলক বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে। জনগণকে সচেতন করা হচ্ছে।  

এছাড়া মশকের প্রজননে উৎসাহিতকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা হচ্ছে।

মন্ত্রনালয় এর আরও খবর: