সতর্ক না হলে ওমিক্রন প্রতিরোধ কঠিন হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

 প্রকাশ: ১৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৫৫ অপরাহ্ন   |   মন্ত্রনালয়


সবাই সতর্ক না হলে ওমিক্রন ভাইরাস প্রতিরোধ করা কঠিন হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।  

সোমবার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে 'স্পেশাল ইনিশিয়েটিভ ফর মেন্টাল হেলথ' শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা জানান।


জাহিদ মালেক বলেন, ওমিক্রন বিষয়ে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। আমি আবারও বলছি, প্রতিরোধ হল সর্বোত্তম প্রতিকার। আমাদের দেশে অনেক মানুষ বিদেশ থেকে আসা যাওয়া করছে। যেসব দেশে ওমিক্রন সংক্রমণ রয়েছে, সেসব দেশেও আমাদের বহু মানুষ আসা যাওয়া করছে। আমেরিকা, মধ্য প্রাচ্য এবং ভারতেও আমাদের বহু মানুষ আসা যাওয়া করছে। কাজেই আমরা যদি নিজেরা সতর্ক না হই, তাহলে ওমিক্রন ঠেকিয়ে রাখা খুব কঠিন হবে। সেজন্য আমি মনে করি, আমাদের সতর্ক হতে হবে।  

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বুস্টার ডোজ দেওয়ার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি ও ফ্রন্টলাইনের কর্মীদের আমরা বুস্টার ডোজ দেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। এটা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছি। বুস্টার ডোজ দেওয়ার আগে আমাদের সংখ্যা নির্ণয় করতে হবে। সেজন্য আমরা সুরক্ষা অ্যাপ আপডেট করছি। আশা করছি আগামী ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে আমরা কাজটি শুরু করতে পারবো।  

তিনি বলেন, বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দলের দুজন খেলোয়াড় ওমিক্রন আক্রান্ত হয়েছে। তারা ভালো রয়েছে। এ খেলোয়াড়দের মাধ্যমে দেশে ওমিক্রন ছড়ায়নি। ওমিক্রন ভাইরাস দ্রুত ছড়ালেও প্রাণঘাতী নয়। ভাইরাসে এখনো পর্যন্ত কেউ মারা যায়নি।  

স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ সময় সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে, মাস্ক পড়তে এবং টিকা গ্রহণ করার আহ্বান জানান।  

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সেবা বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. রোবেদ আমিন, মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. বিধান রঞ্জন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ডা. বার্ধান জাং রানা।

সভায় সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন।  

মন্ত্রনালয় এর আরও খবর: