কোরবানির পশুর চামড়া ছাড়ানো ও সংরক্ষণ পদ্ধতি

 প্রকাশ: ২০ জুলাই ২০২১, ০৫:৩৬ অপরাহ্ন   |   লাইফস্টাইল




কোরবানির পশু জবাইয়ের পূর্বে পর্যাপ্ত বিশ্রাম দিতে হবে এবং জবাইয়ের স্থান সমতল ও পরিষ্কার হতে হবে। কোরবানির পশুর চামড়া ছাড়ানো ও সংরক্ষণে করণীয় সম্পর্কে মঙ্গলবার এক তথ্য বিবরণীতে বলা হয়েছে- কোরবানির পশু জবাইয়ের স্থানে রক্ত জমার জন্য প্রয়োজনীয় সাইজের গর্ত করে নিতে হবে। জবাই করার ছুরি বড় এবং যথেষ্ট ধারালো হতে হবে। জবাইয়ের পর পশুর রক্ত সম্পূর্ণ ঝরাতে সময় দিতে হবে।



তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, কোরবানির পর পশু টানা হেঁচড়া করা যাবে না। এতে ঘর্ষণে চামড়া নষ্ট হতে পারে। কোরবানির বর্জ্য দ্রুত ও সঠিকভাবে অপসারণ করে জীবাণুনাশক ছিটিয়ে দিতে হবে। মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে।



সঠিকভাবে চামড়া ছাড়ানোর পদ্ধতি- পশু কোরবানির পর সুচালো মাথার ছুরি দিয়ে সঠিকভাবে লম্বালম্বিভাবে চামড়া কাটতে হবে। এর পর বাঁকানো মাথার ছুরি দিয়ে চামড়া ছাড়াতে হবে এবং রক্তমাখা ছুরি কোনোভাবেই চামড়ায় মোছা যাবে না। লবণ দিয়ে কাঁচা চামড়া সংরক্ষণের পূর্বে চামড়ায় লেগে থাকা মাংস, চর্বি, রক্ত, পানি, মাটি ও গোবর ভালোভাবে পরিষ্কার করতে হবে। চামড়া ছাড়ানোর ৪ থেকে ৫ ঘণ্টার মধ্যে গরুর চামড়ায় ৭ থেকে ৮ কেজি, ছাগলের চামড়ায় ৩ থেকে ৪ কেজি লবণ ভালোভাবে প্রয়োগ করতে হবে, যাতে কোনো স্থান ফাঁকা না থাকে।



এ ছাড়া চামড়া সংরক্ষণের স্থান একটু উঁচু হতে হবে, যাতে চামড়া থেকে পানি ও রক্ত সহজেই গড়িয়ে যেতে পারে। এমনভাবে চামড়া সংরক্ষণ করতে হবে, যাতে বৃষ্টির পানি বা রোদ না লাগে এবং স্বাভাবিক বাতাস চলাচল করতে পারে।