ফরিদপুর জেলার ভাংগা হতে মাদক দ্রব্যসহ বিকাশ প্রতারক চক্রের ২ সদস্য আটক।

 প্রকাশ: ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩২ অপরাহ্ন   |   সারাদেশ


জাকির হোসেন (ফরিদপুর ) : 

ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানা হতে মাদক দ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট এবং বিকাশ প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ও  সীমকার্ডসহ বিকাশ প্রতারক চক্রের ২ সদস্য আটক করেছে র‌্যাব-৮, ফরিদপুর ক্যাম্প। আটককৃতরা হলো ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানাধীন পশ্চিম রায় নগর গ্রামের মৃত নুরু মুন্সির ছেলে  মোঃ বাবু মাতুব্বর(২৭) ও মিয়াপাড়া গ্রামের মৃত শাহজাহান হাওলাদারের ছেলে মোঃ সোহান হাওলাদার(২৪)।   সোমবার (১৮ অক্টোবর) গভীর রাতে র‌্যাব-৮, সিপিসি-২ ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানাধীন মিয়াপাড়া গ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে উক্ত বিকাশ প্রতারক চক্রের সদস্যদেরকে আটক করা হয়।   এ সময় আটককৃত আসামীদ্বয়ের হেফাজত হতে বিকাশ প্রতারনার কাজে ব্যবহৃত ১৩ টি সীমকার্ডসহ ১৯ টি মোবাইল ফোন এবং ৩১ পিচ মাদক দ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয় । প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত ব্যক্তিদ্বয়ের স্বীকারোক্তি থেকে জানা যায় তারা বিকাশ প্রতারনার মাধ্যমে জনসাধারনের নিকট হতে বিপুল পরিমান অর্থ হাতিয়ে নেওয়াসহ মাদক দ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রয়ের কার্যক্রম করে আসছে। ঘটনার বিবরনে আরো জানা যায়, বিকাশ প্রতারক চক্রের সদস্যদ্বয় বিভিন্ন দুর্নীতি পরায়ণ মোবাইল সীম বিক্রেতার সাথে পরস্পর যোগসাজস করে ভূয়া নামে সীম কার্ড রেজিস্ট্রেশন করতঃ রেজিস্ট্রেশনকৃত সীমকার্ড ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সহজ সরল সাধারণ জনগনের নিকট নিজেকে বিকাশ হেড অফিসের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ফোন করে কৌশলে তাদের বিকাশ পিন কোড জেনে নেয় এবং স্মার্ট ফোনে বিকাশ এ্যাপস্ ব্যবহার করে উক্ত সাধারণ লোকজনের বিকাশ এ্যাকাউন্ট হতে প্রতারনার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছে। আটককৃত ব্যক্তিদ্বয়ের বিরুদ্ধে ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানায় সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজুর করা হয়েছে বলে র‌্যাব-৮ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়।

সারাদেশ এর আরও খবর: